১। ভারত অভ্র উৎপাদনে পৃথিবীর মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করে।
২। মধ্য প্রদেশ রাজ্য ভারতের মধ্যে সবচেয়ে বেশি খনিজ উত্তোলন করে।
৩। গুজরাট রাজ্যে সবচেয়ে বেশি লবণ উৎপাদন হয়।
৪। উড়িষ্যা রাজ্যে সবচেয়ে বেশি বক্সাইট তৈরি করে।
৫। মহারাষ্ট্র রাজ্য সবচেয়ে বেশি পেট্রোলিয়াম উৎপাদন করে।
৬। ব্যাবসায়িক কাজে বিটুমিনাস জাতীয় কয়লা
সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয়।
৭। মধ্য প্রদেশ রাজ্যে সবচেয়ে বেশি হীরা দেখতে পাওয়া যায়।
৮। ঝাড়খন্ড রাজ্যে সবচেয়ে বেশি কয়লা পাওয়া যায়।
৯। তাপ বিদ্যুৎ শক্তি ভারতের সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয়।
১০। লিগনাইট কয়লাকে বাদামি কয়লা বলা হয়।
১১। হরপ্পা নগরটি রাভি নদীর তীরে অবস্থিত।
১২। লোথাল বন্দর শহরটি গুজরাটে অবস্থিত।
১৩। সিন্ধু সভ্যতার 1921 খ্রিস্টাব্দে আবিষ্কৃত হয়।
১৪। দয়ারাম সাহানি সিন্ধু সভ্যতা আবিষ্কার করেন।
১৫। সিন্ধু সভ্যতার বিশেষ বৈশিষ্ট্য ছিল নগরায়ন।
১৬। সিন্ধু সভ্যতায় নাঙ্গল চশমার দেখতে পাওয়া যায় কালিবঙ্গান অঞ্চলে।
১৭। সিন্ধু সভ্যতার সবচেয়ে বড় দুটি শহর ছিল হরপ্পা এবং মহেঞ্জোদারো।
১৮। ইন্ডিয়ান স্পেস রিসার্চ অর্গানাইজেশন 1969 সালে স্থাপিত হয়।
১৯। বিক্রম সারাভাই স্পেস সেন্টার কেরলের তিরুবন্তপুরম এ অবস্থিত।
২০। ন্যাশনাল ডিয়ারি রিসার্চ ইনস্টিটিউট হরিয়ানার কারনাল এ অবস্থিত।
২১। DRDO পুরো নাম ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন। এর সদর দপ্তর ব্যাঙ্গালোরে অবস্থিত।
২২। RAW পুরো নাম রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালাইসিস উইং।
২৩। সুপ্রিম কোর্টের ক্ষমতা বাড়াতে বা কমাতে পারেন সংসদ।
২৪। রাজ্যগুলির সীমানা নির্ধারণ করেন সংসদ।
২৫। ভারতীয় সংসদ – রাষ্ট্রপতি ,লোকসভা ও রাজ্যসভা নিয়ে গঠিত।
২৬। রাজ্যসভা ও লোকসভার যৌথ অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন স্পিকার।
২৭। সংসদের উচ্চকক্ষের অপর নাম রাজ্যসভা

Sharing is caring!